Hot cup of tea in summer? Is it ok or not

ভারতবর্ষে অনেকেকেই গরমকালে ধোঁয়া ওঠা গরম চা খায়!

অবাক হচ্ছেন? প্রাচীন ও গতানুগতিক চীন দেশীয় ওষুধবিধির দৃষ্টিভঙ্গি থেকে যারা মানব শরীরকে জানে তাদের কাছে এটা নতুন কিছু নয়। পাশ্চাত্যদেশ অবশ্য ঠাণ্ডা বা বরফ দেওয়া পানীয় খেয়ে সব থেকে বড় ভুল করে।

পাকস্থলী অনেক ‘তরুণ’, অর্থাৎ এটা উষ্ণ ও সক্রিয়। এটা শরীরের স্টোভ, অর্থাৎ আমাদের মেটাবলিজম ও এনার্জির মাত্রা বজায় রাখার উপযুক্ত আগুণ। খাবার হজম করার সাথে সেটা থেকে পুষ্টি প্রাপ্তির জন্য আমাদের এই আগুণের বা উষ্ণতার প্রয়োজন।

অন্যদিকে জল স্বাভাবিকভাবেই ‘শীতল’। সেইজন্যে আমরা যত বেশী ঠাণ্ডা জল খাবো, আমাদের আভ্যন্তরীণ উষ্ণতা তত কমবে।

মানুষের শরীর ক্ষুদ্র জগতসংসার‍! কোন একটা যদি গোলমাল করে তাহলে পুরো ব্যবস্থাই নড়বড়ে হয়ে যাবে। নিজেকে যদি ভালোবাসেন তাহলে প্রাচীন ও গতানুগতিক চীন দেশীয় ওষুধবিধি মেনে ঠাণ্ডা জলের জায়গায় ধোঁয়া ওঠা গরম চা খান। কারণ সম্পর্কে জেনে নিন…

In india many of us prefer to sip a hot cup of tea even in summer!

Are you surpised? Now if we understand our own body from the prespective of traditional Chinese medicine the same is not odd. West is commiting most ridiculous mistake of drinking iced drink.

Stomach is comperatively ‘Young’, and so it is hot, warm and active. It acts like a stove, means the required internal burning fire to maintain the metabolism and energy level. We need the same fire to digest and assimilate food into nutrients.

On the otherhand water is by default ‘Cold’. For this reason much intake of cols water weaker our internal fire.

Our body is a mini universe! Now, if anything is not in place then everything is heywhere. If you love yourself then by following the traditional Chinese medicine replace your iced water with a hot cup of tea. Know the reason…

১. শরীরকে প্রশমিত করেঃ আপাত বিপরীত হলেও এটা সত্য! বরফ আদপে শরীর গরম করে দেয়। গরমকালে ঠাণ্ডা জল খেলে আমাদের শরীর তাপমাত্রার ভারসাম্য বজায় রাখবার জন্যেই আরও গরম হয়ে ওঠে-পরিনতি শরীর অত্যাধিক গরম হয়ে মাথাঘোরা ও হিট স্ট্রোক বা সানস্ট্রোক। উষ্ণ চায়ের কাপে চুমুক দিলে শরীর শিথিল হয়ে প্রশমিত হয়ে যায় এবং কোন রকম তাপমাত্রার ফারাক না মিটিয়েই স্বাভাবিক হোমোস্ট্যাটিক তাপমাত্রায় কমে আসে (সাম্যাবস্থা)।

  1. It cools us down: May be aparently reverse but it is true! Ice actually make our body to generate heat. Now, when we take cold water in summer days our body gets heating up to maintain the difference in temperature. Resulting condition like heat stroke or sun stroke. Sipping cup of hot tea allow the body to relax and without compensating any temperature difference cool down itself to a norman homostatic temperature.

২. হজমে সহায়তা করেঃ গরমকালের উষ্ণ-আর্দ্র আবহাওয়াতে আমাদের শরীরের অভ্যন্তরীণ ‘তাপমাত্রা’ ও ‘স্যাতস্যাতে’ এনার্জির পরিমাণ অনেকটাই বেড়ে যায় বলে সেটা রোগব্যাধির উপযুক্ত পরিবেশ। পরিপাকতন্ত্র এই পরিস্থিতিতে সব থেকে বেশী ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ঠাণ্ডা পানীয় ও খাবার পরিপাকতন্ত্রে রক্ত সংবহন নিয়ন্ত্রিত করে দেয় বলে হজম ক্ষমতার ক্ষতি করে, বিশেষকরে খাবার খাওয়ার পরে। মিল খাওয়ার আগে ও পরে গরম চায়ে চুমুক দেবার অর্থ হল পরিপাকতন্ত্রর সুস্থতা বজায় রাখা।

  1. Helps to digest: In the Hot and humid weather of summer days, body actually accumulate to much ‘Heat’ and ‘damp’ energies and the same is beneficial for pathogens and illness. In this situation the metabolic system toll much. Iced drink and food restrict blood flow to the system after meal and weakens the whole digestive system. Sipping warm tea before and after any meal keep the system running.

৩. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী করেঃ উষ্ণ চা সংবহন ও শরীরে পুষ্টি উপাদানের শোষণ বাড়ায়। ঠাণ্ডা পানীয় খেলে সেটা আমাদের হজম ক্ষমতার গতি বাড়িয়ে দেয় বলে শরীরের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ ঠিকমতন পুষ্টি উপদান শোষণ করতে পারে না। শরীর যদি, বৃদ্ধি-বিকাশ, শরীর পুনরুদ্ধারের প্রয়োজনীয়তা অনুযায়ী পুষ্টি উপাদান না পায়, তাহলে  অঙ্গর ঠাণ্ডা লাগার প্রবণতা এবং আনুসাঙ্গিক রোগব্যাধি হবার ধাত বেড়ে যাবে।

  1. Make immune system stronger: Warm tea promote our circulation and nutrient absorbtion capability of the body. Cold drink speeds up GI tract and so body is unable to absorb nutrients properly. With time due to nutrients deficiency body is vulnarable to cough and cold, as nutrients are required for growth and reapir.

৪. ফুসফুসের সুস্থতা বজায় রাখেঃ ফুসফুসের রোগ শুধুমাত্র ধুমপান ও জিনগত কারণেই হয় না। শরীরে অনেকদিন যাবত ঠাণ্ডা জমলে কিন্তু ফুসফুসের কার্যকারীতা দুর্বল হয়ে যাবে এবং সেই কারণেই হাঁপানি, সাইনাস, অ্যালার্জি ও হে ফিভারের মতন ক্রনিক রোগ হবার সম্ভবনা বেড়ে যায়। ফুসফুসের কাছে পাকস্থলী হচ্ছে মায়ের মতন। অর্থাৎ ফুসফুসের সঠিক ও যথাযথ কাজের জন্যে শক্তিশালী পাকস্থলীর প্রয়োজন। আরও বেশী বললে, শরীর যদি অধিক মাত্রায় ঠাণ্ডা জমায়, সেটা তখন গলার রক্তবাহী নালিকে সঙ্কুচিত করে। গলার এই দুর্বলতা বিভিন্ন রোগের উপযুক্ত পরিবেশ। ঠাণ্ডা লাগলে সেই কারণেই আমরা বাচ্চাদের মতন গরম চিকেন স্টু খাই! এককথায় উষ্ণ শরীর হল সুস্থ ফুসফুসের ভিত্তি!

  1. Keep lungs healthy: lungs ailments is only not related with smoking and genetics. When body accumulates cols for prolonged period it in turn weakens lungs and due to this some cronic illness like asthma, sinus and hey fever aggravates. Stomach is motherly like for lungs. A strong stomach is required for healthy and proper functioning of lungs. Excess cold entering into body also causes blood vessels in throat to contract. A weak throat is vulnarable to number of ailments. Due to this we are hopefully fed chicken soup instead of ice cream when he had cold like child. Warmer body is the base for healthy lungs!

৫. জনন সংক্রান্ত সমস্যার নিরাময় করেঃ উষ্ণ চা ভালোভাবে রক্ত সংবহন করে। অত্যাধিক পরিমাণ ঠাণ্ডা জল খেলে মাসিক বা পিরিয়ডের গোলমাল হয়, খিঁচুনি ধরে ও বন্ধ্যাত্বের মতন ইমপেয়ার্ড ফিজিক্যাল সমস্যা দেখা দেয়। শরীরে অধিক ঠাণ্ডা জমার অর্থ হল আর্দ্রতা ও স্যাঁতস্যাঁতে ভাব এবং সেটা আদপে ব্যাকটেরিয়া, ক্যান্ডিডা ও পরজীবী বাড়ার উপযুক্ত পরিবেশ।

  1. Prevents reproductive issues: Warm tea promotes healthy blood flow! Excessive inlake of cold water negetively effects our reproductive system, causing menstrual problem, cramps and impaired physiological function like infertility. Extra accumulation of cold in body means moisture and dampness and it is indeed ideal for bacteria, Candida and parasites to grow.

৬. ওজন কমাতে সাহায্য করে- বড় হবার সময়ে সবথেকে বোকাবোকা একটা কথা হামেশাই শোনা যায় ‘ঠাণ্ডা জল হজম ক্ষমতা বাড়ায়’। বরফ শুধু আমাদের শরীরের অভ্যন্তরীণ উষ্ণতা কমায় একইসাথে মেটাবোলিজমেরও ক্ষতি করে। শরীরের অভ্যন্তরের শীতলতা ফ্যাট জমার পক্ষে মানানসই পরিবেশ। ফ্রিজে স্যাতলান খাবার রাখার আগে ভেবে দেখুন শরীরে মেদ জমলে কি করবেন? একই জিনিষ নিজের পাকস্থলীর সাথে করবেন না। উষ্ণ তরল ফ্যাটকে এনার্জি হিসেবে ব্যবহারের নিশ্চয়তা দেয়। সেইকারণেই চা ওজন কমানোর উপযুক্ত পানীয় বলে পরিচিত।

  1. Helps to loose weight: ‘Cold water speeds up metabolism’ this is the most dump thing we learn while growing. Ice not only reduces internal heat but same time hamper metabolism. It is ideal to get fat. Think twice before putting sauteed foods in fridge. Don’t do the same with your stomach. Warm liquide can help to ensure that fat stores actually used for energy. For that reason tea is considered as ideal to reduce weight.

শরীরের যত্ন নিন এবং গরমকালে সুস্থ-সবল থাকুন!

Tags:

We will be happy to hear your thoughts

      Leave a reply

      Logo
      Compare items
      • Total (0)
      Compare
      0